সঠিক যত্ন নিলে প্রতিদিন ব্যবহার করা অলংকারগুলোও ঝকঝকে থাকবে। তাই অলংকারের সঠিক যত্ন নেবার জন্য আমরা আপনাদের জন্য বেসিক জুয়েলারী কেয়ার গাইড তৈরী করেছি। আশা করি আমাদের এই টিপস গুলো আপনাকে সাহায্য করবে।

অলংকার পরার টিপস

প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মানুষ অলংকার পরে থাকে। এর মধ্যে সামান্য কিছু সংখ্যক লোক এর সঠিক সংরক্ষণ পদ্ধতি সম্পর্কে জেনে থাকবে। তাই আমাদের এই গাইডলাইন শুধু আপনার জন্য। এখানে অলংকার কখন পরবেন সে সম্পর্কে কিছু টিপস দেয়া আছে-

  • কাজ করার সময় অলংকার খুলে রাখবেনঃ- রান্না ঘরে কাজ করার সময়, বাগানে কাজ করার সময় এবং কোন রাসায়নিক পদার্থ দিয়ে কোন কোন কিছু পরিষ্কার করার সময় যেমন- বাসনপত্র মাজার সময় অলংকার খুলে রাখবেন। ক্লোরিন মেশানো সুইমিং পুলের পানিতে গোসল করতে যাবেন না। গরম পানির ট্যাবে গোসল করবেন না।
  • মেকাপ করার পর অলংকার পরুনঃ- কসমেটিক, পারফিউম, হেয়ার স্প্রে এবং লোশনে যে ধরণের রাসায়নিক দ্রব্য থাকে তাতে অলংকারের ক্ষতি হতে পারে। তাই যেকোনো ধরণের ক্ষতি থেকে আপনার অলংকারকে রক্ষা করার জন্য সাজগোজের সব শেষে অলংকার পরুন।
  • সুইমিং পুল এবং স্পা-তে অলংকার পরে থাকবেন নাঃ- সুইমিং পুলের পানিতে ক্লোরিন নামক এক ধরণের রাসায়নিক দ্রব্য থাকে যা অলংকারের রঙ নষ্ট করে দেয়, মাঝে মাঝে অলংকারের অবয়ব নষ্ট করে ফেলে। তাই সুইমিং পুল বা স্পা তে যাওয়ার পূর্বে অলংকার খুলে রাখুন।
  • খেলাধুলার সময় অলংকার খুলে রাখুনঃ- খেলাধুলার সময় ছোঁটাছুটি করতে গিয়ে অনেক সময় পরিহিত অলংকারের উপর আঘাত বা ছোঁট লাগতে পারে। এতে অলংকার ছিঁড়ে বা ভেঙ্গে যেতে পারে। তাই খেলাধুলা শুরু করার পূর্বেই অলংকার খুলে রাখুন।

আমাদের shadmart এর অলংকারগুলো খুব সুনিপুণভাবে দীর্ঘদিন ব্যবহারের জন্য তৈরী করা হয়ে থাকে।

এখনকার  কিছু ২০১৭ সালের ডিজাইন দেখুন

অলংকার পরিষ্কার করার টিপস

প্রাত্যাহিক ব্যবহারের অলংকারগুলোকে পরিষ্কার এবং ঝকঝকে রাখতে হলে নিয়মিত অলংকার পরিষ্কার করতে হবে। এগুলো অলংকার পরিষ্কার করার কিছু সাধারণ টিপস যা আপনার কাজে লাগবে-

  • গোসলের পূর্বে আপনার অলংকার খুলে রাখুনঃ- গোসল করার সময় সব ধরণের অলংকার খুলে রাখুন, কারণ সাবানের ঝিল্লী অলংকারের নমনীয়তা নষ্ট করে এবং অলংকারে কালচে ভাব এনে দেয়। তাই এসব ঝামেলা থেকে বাচঁতে হলে গোসলের পূর্বে অলংকার খুলে রাখুন।
  • সর্বোচ্চ ফলাফলের জন্য মসৃণ কাপড় ব্যবহার করুনঃ- ভালো ফলাফল পাওয়ার জন্য স্বর্ণ এবং রুপা পালিশ করার মসৃণ কাপড় দিয়ে অলংকার পরিষ্কার করুন। আপনি পাতলা কাপড় অথবা পুরোনো তোয়ালে ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু জুয়েলারী পলিশিং কাপড় হলে খুব ভালো হয়। টিস্যু ব্যবহারের ফলে গয়নাতে আচঁড় লাগতে পারে কারন এটি তন্তুর তৈরী পণ্য।
  • যত্ন সহকারে অলংকার পরিষ্কার করবেনঃ- নিয়মিত অলংকার পরিষ্কার করলে এটি দেখতে অনেক সুন্দর ও ঝকঝকে দেখায়, কিন্তু পরিষ্কার করতে হবে খুব সতর্কতার সহিত। আপনি মণিকারের কাছ থেকে অলংকার পরিষ্কার করার পরিষ্কারক কিনতে পারেন অথবা আপনার নিজস্ব কোন পরিষ্কারের পদ্ধতিতে করতে পারেন। এলকোহল দিয়ে ঘষলে পরিষ্কার হয় দারুণ, কিন্তু এতে অলংকার ক্ষয় হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই এইভাবে অলংকার পরিষ্কার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • হালকা গরম পানি দিয়ে অলংকার পরিষ্কার করুনঃ- অলংকার পরিষ্কার করতে হালকা গরম পানি ব্যবহার করুন। গরম পানি অলংকারের রঙ নষ্ট করে দেয় তাই আপনি তাপ সহনীয় পদার্থের অলংকারে গরম পানি ব্যবহার করবেন। যেমন- স্টার্লিন রুপা।
  • ভাঙ্গা বা নষ্ট অলংকার পরিষ্কার করবেন নাঃ- কখনো নষ্ট, ভাঙ্গা, বা ফাটল ধরা অলংকার পরিষ্কার করতে যাবেন না। কারণ, এতে আপনার অলংকারটি আরো বেশী নষ্ট হয়ে যাবে বা ভেঙ্গে যাবে। যদি আপনি অলংকারে সামান্য কোন ফাটল দেখেন তাহলে দ্রুত মণিকারের কাছে নিয়ে মেরামত করান।
  • নিয়মিত অলংকার পরীক্ষা করুনঃ- অন্যান্য জিনিসের মতোই, সামান্যতম প্রতিরোধই আপনার বিশাল ত্রুটি থেকে বাচাতে। যখন আপনি আপনার অলংকার জুয়েলারী দোকান থেকে পরিষ্কার করাবেন তখন আপনার অলংকারগুলোকে পরীক্ষা করিয়ে নিতে পারেন। এতে কোন ধরণের ক্ষয় আছে কিনা বা সম্ভাব্য কোন ফাটল আছে কিনা, থাকলে তা চিহ্নিত করে রাখুন এবং যদি সম্ভব হয় তখনিই সারিয়ে নিন।

আর ও কিছু ডিজাইন দেখুন

অলংকার ঠিক করার টিপস

মাঝে মাঝে আপনার অলংকার ঠিক করাতে হতে পারে। আমাদের জেলস-এ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এবং দক্ষ মণিকার দিয়ে অলংকার ঠিক করানো হয়। আপনি চাইলে আপনার এলাকায় অবস্থিত জেলস-এর দোকানে গিয়ে দক্ষ মণিকার দিয়ে আপনার অলংকারটি সারিয়ে নিতে পারেন। আমাদের গাইডলাইনগুলো অনুসরণ করতে পারেন যা আপনাকে সাহায্য করতে পারে-

  • আপনার অলংকারের ক্ষত দূর করুনঃ- প্রতিরোধই সর্বোত্তকৃষ্ট উপায় আপনার অলংকারকে মেরামত করার প্রয়োজনীয়তা থেকে রক্ষা করতে। তাই নিয়মিত অলংকার পরীক্ষা করলে সম্ভাব্য ব্যায়-বহুল মেরামত খরচ থেকে বাঁচা যাবে। আপনি প্রতি দুই বা তিন মাস অন্তর অন্তর অলংকার পরীক্ষা করিয়ে নিবেন। যদি সামান্য কোন সমস্যা থাকে তাহলে তা বড় আকার ধারণ করার আগেই সারিয়ে নিন।
  • রিভিউ এবং রেফারেল খুঁজুনঃ- যদি আপনার অলংকার ঠিক করার জন্য দক্ষ মণিকারের দরকার হয়, তখন আপনি তাদের রিভিউ দেখুন এবং রেফারেল খুঁজুন। কারণ, অলংকার ঠিক করাতে পরিচিত কোন মণিকারের কাছে যাওয়াই উত্তম।
  • অলংকার ঠিক করার দরদামঃ- অলংকার ঠিক করতে নিলে মণিকারের সাথে দরদাম ঠিক করে নিবেন। তাদের মূল্য বইয়ের তালিকা দেখে নেওয়াটাই জ্ঞানের কাজ হবে।

অলংকার সংরক্ষণ করার টিপস

অলংকার সঠিক এবং নিরাপদ স্থানে সংরক্ষণ করতে হয়। অলংকারের সঠিক সংরক্ষণ পদ্ধতি খুব কম সংখ্যক লোক হয়তো জেনে থাকবে। আপনি যদি আমাদের এই গাইডলাইন অনুসরণ করেন তাহলে আপনার মূল্যবান অলংকারগুলোকে সঠিকভাবে সংরক্ষণ করতে পারবেন।

  • অলংকার নিরাপদ স্থানে রাখুনঃ- অলংকার এমন একটি বাক্সে রাখবেন যেখানে অলংকারগুলো এপাশ ওপাশ হতে পারবে না। ফেব্রিক-লাইনড জুয়েলারী বক্স হলে খুব ভালো হয়।
  • অলংকারের মরিচা পরা প্রতিরোধ করুনঃ- মাঝে মাঝে স্বর্ণ বা রুপার অলংকারে মরিচা ধরে যায়। এই মরিচা রোধ করার জন্য অলংকারকে এন্টি-টার্নিশ বাক্সে সংরক্ষণ করুন।
  • আপনার অলংকারের তালিকা করুনঃ- দূর্ভাগ্যবশত অলংকার হারিয়ে চুরি হয়ে যেতে পারে। তাই অলংকারের তালিকা করে রাখলে তা বীমা করার সময় বা পুলিশে রিপোর্ট করার সময় কাজে লাগতে পারে। সবচেয়ে ভালো হয়, আপনি যদি আপনার গয়নার বিবরণ ও দামসহ ছবি তুলে রাখেন। আর আপনার এই তালিকাটা অলংকারের থেকে আলাদা রাখুন।

ভ্রমণ করার সময় গয়না একটি বাক্সে রাখুন

  • কোথাও ভ্রমণ করার সময় অলংকারগুলোকে প্যাড দ্বারা আলাদা করা বক্সে রাখুন যাতে কোন ধরণের ক্ষতি না নয়। ফ্যাব্রিক বা চামড়ার তৈরীর জুয়েলারী ট্র্যাভেল বক্স হলে উত্তম হয়। এতে সব ধরণের অলংকার সু-সজ্জিত ভাবে রাখা যায়। অলংকারের সুরক্ষার জন্য ভ্রমনের সময় অলংকার বাক্সে রাখা উত্তম।

অলংকার স্থানান্তর করার টিপস

আমাদের এই টিপসগুলো অলংকার নিরাপদে কোথাও পাঠানোর জন্য। যা হয়তো আপনার কাজে লাগতে পারে।

  • দুটি বাক্স ব্যবহার করুন। একটির ভিতরে অলংকার রাখুন এবং অন্যটিতে রেখে স্থানান্তর করুন।
  • সতর্কতার সহিত ভিতরের বাক্সটি প্যাক করে নিন যাতে ভিতরে অলংকার এলোমেলো না হতে পারে।
  • শিপিং বক্সটিকে ভালোভাবে প্যাকিং উপাদান দিয়ে মুড়িয়ে দিন, ভিতরের বক্সটির সুরক্ষার জন্য।
  • শিপিং বক্সের উপর জুয়েলারী বা মণিকারের সব তথ্য মুছে দিন।
  • ট্যাপ দিয়ে উভয় বাক্সটিই সম্পূর্ণ মুড়িয়ে নিন।
  • চালান নিশ্চিত করুন।
  • গ্রহণ করার জন্য একটি স্বাক্ষর প্রয়োজন।
  • ড্রপ বক্স ব্যবহার করবেন না।

আশা করি, আমাদের এই সাহায্যমূলক টিপসগুলো আপনার কাজে আসবে। আরো নতুন নতুন তথ্য পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।